এখন পড়ছেন
খবর

বিদেশী মিডিয়ায় হেফাজতের অবরোধ

hiবিদেশী মিডিয়ায় অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে উঠে এসেছে হেফাজতে ইসলামের ঢাকা অবরোধ কর্মসূচি। প্রায় ১০ দিনের বেশি সময় সাভারের রানা প্লাজা ধসের বিষয়টি আলোচিত হওয়ার পর পুলিশের সঙ্গে হেফাজত কর্মীদের সংঘর্ষ এবং পুলিশি অ্যাকশনের বিষয়টি উঠে আসে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে।

বিবিসি
বিবিসির ইংরেজি এবং বাংলা দুই মাধ্যমের প্রচ্ছদে লিড হিসেবে স্থান পেয়েছে হেফাজত কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ। ‘Police break up Dhaka Islamist unrest’ এই শিরোনামে বিবিসি জানায়, অন্তত পাঁচ লাখ হেফাজত কর্মী ঢাকা অবরোধ কর্মসূচিতে অংশ নেয়। এই বিপুল জনসমাবেশে পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড, রাবার বুলেট এবং কাঁদানে গ্যাস চার্জ করে। এরফলে অন্তত সাতজন হেফাজতের কর্মী নিহত হয়। আহত হয়েছে অন্তত ৬০ জন। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে বিভিন্ন দোকান এবং স্থাপনায় আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

বিবিসি বাংলা ‘শাপলা চত্বর পুলিশের দখলে’ শিরোনামে লিড করে। প্রতিবেদনে জানানো হয়, পুলিশ, র্যা ব এবং বিজিবির প্রচুর সদস্য এই অভিযানে অংশ নেয়।

সিএনএন
‘Bangladesh Islamists battle police; 4 dead’  এই শিরোনামে সংবাদটি প্রচার করে সিএনএন। প্রতিবেদনে বলা হয়, হেফাজতের কর্মসূচিতে লক্ষাধিক কর্মী অংশ নেয়। রাজধানী ঢাকা কার্যত অচল হয়ে পড়ে। পুলিশের মুহুর্মুহু ছোঁড়া সাউন্ড গ্রেনেড, রাবার বুলেট এবং কাঁদানে গ্যাসে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

আলজাজিরা
‘Bangladesh clashes rage over blasphemy law’ এই শিরোনামে প্রচ্ছদে লিড করে আলজাজিরা। অন্তত নয়জন নিহতের তথ্য উল্লেখ করে প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্লাসফেমি আইনের দাবিতে ঢাকা অবরোধ কর্মসূচি পালন করে হেফাজতে ইসলাম। হেফাজতে ইসলামের কর্মসূচিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রায় ১০ হাজার সদস্য অভিযান চালায়। সংঘর্ষে অন্তত ১০০টি দোকান এবং ৫০টি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়।

এনডিটিভি
এনডিটিভির অনলাইন সংস্করণে ‘10 dead as Bangladesh protesters clash with police demanding new blasphemy law’ এই শিরোনামে প্রচার করা হয় হেফাজতে ইসলামের ঢাকা অবরোধ কর্মসূচির সংবাদটি। প্রতিবেদনের ভেতরে বলা হয়, কর্মসূচিতে লক্ষাধিক কর্মী অংশগ্রহণ করে। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে অন্তত ১০জন নিহত এবং লক্ষাধিক আহত হয়। কর্মসূচিতে ‘এক দফা এক দাবি, নাস্তিকদের ফাঁসি চাই’ এই স্লোগান দেয়া হয়।

রেডিও তেহরান
‘দিগন্ত টিভি বন্ধ; সাঁড়াশি অভিযানে শাপলা চত্বর ফাঁকা’ এই শিরোনামে লিড করে রেডিও তেহরানের বাংলা সার্ভিস। প্রতিবেদনে দিগন্ত টেলিভিশন বন্ধ এবং হেফাজত কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের কথাটি উল্লেখ করা হয়।

Advertisements

আলোচনা

কোন মন্তব্য নেই এখনও

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

হেফাজতে ইসলামের খবর

https://banglargangai.wordpress.com/wp-admin/widgets.php#available-widgets

ফরহাদ মজহারের কলাম

Join 253 other followers