এখন পড়ছেন
খবর

রাতেই পুলিশি অ্যাকশন, ক্ষমতাসীনদের সশস্ত্র অবস্থান

image_24635_0হেফাজতের লাগাতার অবস্থানের ঘোষণার পর দলীয় নির্দেশে রাজধানীর বিভিন্ন মোড়ে সশস্ত্র অবস্থান নিয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সুত্র. আরটিএনএন.নেট

এদিকে, বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিনের পর মতিঝিলের সমাবেশস্থল তিন দিক থেকে ঘিরে রেখেছে বিপুলসংখ্যক পুলিশ র‌্যাব ও বিজিবি।

এরই মধ্যে হেফাজত নেতাকর্মীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যদের থেমে থেমে সংঘর্ষ হচ্ছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তারা হেফাজতের মোকাবেলায় সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। এখন উপরের নির্দেশনার অপেক্ষায় রয়েছে। নির্দেশ পেলেই মতিঝিল থেকে হেফাজতকর্মীদের সরিয়ে দেবে।

এর আগে আজ বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আমরাফুল ইসলাম হেফাজতকে সন্ধ্যার মধ্যে ঢাকার ছাড়ার কথা বলেছিলেন। এর ব্যতয় হলে ব্যবস্থা নেয়ারও হুমকি দেন তিনি।

সরকারি সূত্র দাবি করেছে, এখন পর্যন্ত সরকার হেফাজতের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বিভিন্নভাবে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে পরিস্থিতির মোকাবেলার চেষ্টা করছেন। তবে এই কাজ না হলে রাতেই পুলিশি অ্যাকশনের নির্দেশনা দেয়া হতে পারে।

এজন্য আওয়ামী লীগের থেকে অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের বঙ্গবন্ধু এভিনিউসহ স্ব স্ব ওয়ার্ডে অবস্থান নিতে বলা হয়। এরপরই দেখা গেছে, নগরীর বিভিন্ন মোড়ে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা লাঠি-সোটা এবং আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে অবস্থান নিয়েছে।

এসব অবস্থানের মধ্য থেকে ইতোমধ্যে রাত সাড়ে ৯টার দিকে মগবাজার, মালিবাড় এলাকায় বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তারা বেশ কয়েকজনকে জামায়াত-শিবিরের কর্মী বলে পিটিয়েছে।

এছাড়া রাজধানীর কাকরাইল, শান্তিনগর, মগবাজার, বাংলা মটর, শাহবাগ, টিএসসি ও চানখারপুলে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে সশস্ত্র অবস্থান করছে।

কাকরাইল ও শান্তিনগর এলাকায় আওয়ামী লীগ ও স্থানীয় যুবলীগের কর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে অবস্থান নিয়েছেন। তারা হেফাজতের একদল কর্মীকে ধাওয়াও করেছে।

মগবাজার এলাকায় সরকার দলের নেতাকর্মীরা লাঠি নিয়ে অবস্থান নিয়েছেন। এ সময় তারা একটি গাড়ি ভাঙচুর করে তাতে অগ্নিসংযোগ করে। হেফাজতকর্মীদের বহনকারী ভেবে বেশ কয়েকটি গাড়িতে হামলা চালায় ক্ষমতাসীন দলের কর্মীরা।

আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে আসা নেতাকর্মীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় জড়ো হয়েছেন। টিএসসিতে ছাত্রলীগের কর্মীদের অনেককে আগ্নেয়াস্ত্র সঙ্গে নিয়ে অবস্থান করতে দেখা গেছে।

রাজধানীর ইস্কাটন ও বাংলামটর মোড়ে সশস্ত্র অবস্থানে রয়েছে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। বাংলামটর মোড়ে লাঠি হাতে অবস্থান নেয়া নিজেকে যুবলীগের কর্মী দাবি করা একজন বলেন, ‘হেফাজত পিটাইতে আসছি।’

অন্যদিকে, শাহবাগে লাঠি, হকিস্টিক ও ক্রিকেট খেলার স্ট্যাম্প হাতে অবস্থান নিয়েছে শাহবাগ আন্দোলনের শ’ খানেক নেতাকর্মী। মঞ্চে চলছে সঙ্গীত পরিবেশন।

এছাড়া চানখারপুলে নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে অবস্থান করছে, সেখানে হেফাজতের কয়েকজন কর্মীকে পিটিয়েছে বলে তারা দাবি করেছেন।

Advertisements

আলোচনা

কোন মন্তব্য নেই এখনও

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

হেফাজতে ইসলামের খবর

https://banglargangai.wordpress.com/wp-admin/widgets.php#available-widgets

ফরহাদ মজহারের কলাম

Join 253 other followers